আপনার ব্যবসা কি শুধুমাত্র ফেসবুক নির্ভর?

আপনার ব্যবসা কি শুধুমাত্র ফেসবুক নির্ভর?
Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on email
Email
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on print
Print

আপনার ব্যবসা কি শুধুমাত্র ফেসবুক নির্ভর?

উত্তরটা যদি হয় হ্যাঁ তাহলে আপনার অনলাইন ব্যবসা ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। অনেক ফলোয়ার থাকার কারণে হয়তো আপনি স্বস্তি-বোধ করছেন কিন্তু একটা ব্যাপার কি ভেবে দেখেছেন যে, কোনো কারণে যদি আপনার পেইজটি ফেসবুক সাময়িক বা স্থায়ীভাবে ব্যান বা বন্ধ করে দেয় সেক্ষেত্রে আপনার কি কোনো বিকল্প রয়েছে? তাছাড়াও ফেসবুক আপনার নিজের ওয়েবসাইট না, শুধুই ৩য় একটি পক্ষ-মাত্র, ব্যাপারটা অনেকটা ভাড়া করা দোকানের মতো। আর ইন্টারনেটের এই মহাজগতে আপনার একেবারে নিজের একটি দোকান বা ঠিকানা থাকবে সেটা নিশ্চয়ই আপনি চাইবেন। আর ক্রেতারা উপযুক্ত অনলাইন শপ বা দোকান বলতে ই-কমার্স ওয়েবসাইটকেই বুঝে থাকে এবং ক্রেতার বিশ্বাসের জায়গাতেও ই-কমার্স ওয়েবসাইট অনেকখানি এগিয়ে।

আপনাকে আমরা ফেসবুক ব্যবহার করতে একেবারেই নিরুৎসাহিত করছি না, বরং ফেসবুকের নতুন ই-কমার্স ফিচারগুলো ব্যাবহারের মাধ্যমে আপনার পণ্য মানুষের কাছে বেশি করে পৌঁছে দিন এটাই আমাদের চাওয়া। আপনি নিশ্চয়ই জানেন ফেসবুকের ই-কমার্স ফিচারগুলো সবচেয়ে ভালোভাবে কাজে লাগানো যায় পেইজের সাথে যদি ওয়েবসাইটকে যুক্ত করা হয়।

চলুন দেখে নিই ই-কমার্স ওয়েবসাইটের কিছু সুবিধা:

  • ক্রেতার কাছে আপনার ব্র্যান্ডের গ্রহণযোগ্যতা বহুগুণ বাড়িয়ে দেয় যা আপনার বিক্রি বাড়াতে সাহায্য করে। কারণ আজকাল একটি ফেসবুক পেইজ খুলে সেখানে কিছু পণ্য আপলোড করে অনেকেই ক্রেতাদের বিশ্বাস নষ্ট করছে। সেক্ষেত্রে ক্রেতা যখন আপনার ই-কমার্স ওয়েবসাইটটি দেখবে তখন আপনাকে পেশাদার, স্মার্ট এবং বিশ্বস্ত ব্যবসায়ী মনে করবে।
  • কোনো কারণে আপনার ফেসবুক পেইজটি হারিয়ে গেলেও ক্রেতারা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনার পণ্য দেখতে বা ক্রয় করতে পারবে ।
  • ওয়েবসাইটে পণ্যের বিস্তারিত আপলোড করার সাথে সাথে তা আপনার ফেসবুক পেইজেও স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপলোড হয়ে যাবে যা কিনা আপনার অফুরন্ত সময় বাঁচাবে।
  • আপনার পেইজের সাথে ওয়েবসাইটকে যুক্ত করলে ফেসবুক আপনাকে নতুন কিছু ই-কমার্স ফিচার ব্যাবহার করার সুযোগ দিবে, যেমন- পণ্যের লিঙ্ক সহ স্লাইডার ছবি আপলোড করতে পারবেন, ক্রেতারা ওয়েবসাইট থেকে সরাসরি মেসেঞ্জারের মাধ্যমে আপনার সাথে কথা বলতে পারবে।
  • গুগল সার্চের মাধ্যমে ক্রেতারা আপনাকে সহজেই খুঁজে পাবে এবং এক্ষেত্রে গুগলের মাধ্যমে নতুন ক্রেতা পাবার সম্ভাবনা বহুগুণে বেড়ে যাবে।
  • ক্যাশ অন ডেলিভারি ছাড়াও বিকাশ, নগদ, রকেট এবং ব্যাংকের মাধ্যমে ক্রেতা পেমেন্ট করার সুবিধা পাবে আপনার ওয়েবসাইটের মাধ্যমে।
    এছাড়াও ই-কমার্স ওয়েবসাইটের আরো অনেক সুবিধা রয়েছে ।

 

সহজ ভাষায় বলতে গেলে আপনি ই-কমার্স ব্যবসা করছেন কিন্তু আপনার ওয়েবসাইট নেই , তার মানে আপনি প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে আছেন অন্যদের চেয়ে। এই লেখাটি পড়ার পর আপনার যদি কিছুক্ষণের জন্যেও মনে হয় যে হ্যাঁ ব্যবসার ভালোর জন্য একটা ই-কমার্স ওয়েবসাইট করা দরকার তাহলে আমাদের সাথে কথা বলে বাকি বিষয়গুলো বিস্তারিত আলাপ করে নেবার আমন্ত্রণ রইলো।